ঢাকা, সোমবার, ৫ মাঘ ১৪২৭, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

রাজনীতি

বাঘায় নির্বাচনী কার্যালয়-দোকানপাটে অগ্নিসংযোগ, গুলিবর্ষণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩৩৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২১
বাঘায় নির্বাচনী কার্যালয়-দোকানপাটে অগ্নিসংযোগ, গুলিবর্ষণ

রাজশাহী: রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক তাণ্ডব চালানো হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার আলীর সমর্থকরা এ তাণ্ডব চালিয়েছেন।

বুধবার (১৪ জানুয়ারি) রাত পৌনে ১০টার দিকে আড়ানী পৌর সদরের তালতলা বাজারে আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী শহিদুজ্জামান শহিদের পথসভায় গুলি ও বোমা হামলা চালান তারা। এ সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী এবং ব্যক্তিগত কার্যালয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগেরও ঘটনা ঘটে। এছাড়াও তালতলা বাজারে বেশকিছু দোকান ভাঙচুর এবং লুটপাট হয়েছে।

বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তারের সমর্থকদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শাহিদের ভাগ্নে তুষার (২৮) আহত হয়েছেন। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাত ১১টার দিকে তালতলা বাজারের উত্তর এবং দক্ষিণ দিকে দুই প্রার্থীর প্রায় তিন হাজার সমর্থক সশস্ত্র অবস্থায় অবস্থান করছিলেন। এনিয়ে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। আবারও রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

এর আগে রাত সাড়ে ৯টার দিকে প্রথমে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী শাহিদের পথসভার প্রায় শেষ মুহূর্তে বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার আলীর সশস্ত্র সমর্থকরা আকস্মিক হামলা করেন। এ সময় মুক্তার আলীর সমর্থকরা গুলিবর্ষণ শুরু করে এবং বোমা হামলা চালান। প্রাণের ভয়ে এ সময় শাহিদের সমর্থকরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান।

এ ঘটনার পর বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার মাইকিং করে তার সমর্থকদের ডাকেন। শাহিদসহ উপস্থিত নেতাকর্মীরা এ সময় সংগঠিত হয়ে মুক্তারের সমর্থকদের প্রতিরোধের চেষ্টা করেন। এ সময় মুক্তারের প্রায় পাঁচ শতাধিক সমর্থক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এদের মধ্যে সশস্ত্র কয়েকজন সমর্থক গুলি ছোড়ে ও বোমা হামলা চালায়। দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে শাহিদের সমর্থকদের তাড়া করে।

মুক্তারের সমর্থকদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে শাহিদের ভাগ্নে তুষার আহত হন। একপর্যায়ে মুক্তারের সমর্থকরা সেখানে নৌকা প্রার্থীরা নির্বাচনী কার্যালয় এবং মেয়র প্রার্থী শাহিদের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগ করে। এছাড়া আশপাশের দোকানপাটে লুট  এবং অগ্নিসংযোগ করা হয়।

রাজশাহীর পুলিশ সুপার (এসপি) এ বি এম মাসুদ হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে মুক্তার বর্তমানে আড়ানী পৌরসভার মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন।

এবারও তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। কিন্তু দল থেকে মনোনয়ন না পাওয়ায় বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এজন্য আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৩৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২১
এসএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa